সোমবার, নভেম্বর ২৩

হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কঠোর পরিশ্রমী মানুষ

সিরাজুল ইসলাম-লালমনিরহাট প্রতিনিধি: সারা দেশের মানুষ যখন করোনা ভাইরাস থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে হোম কোয়ারেন্টইনে আছেন, ঠিক তখন পেশাগত ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বের পাশাপাশি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কখনো খাবার হাতে, বাজার নিয়ন্ত্রনে, কখনো বাল্যবিয়ে বন্ধে, কখনো নিজের ইউনিয়ন বাসীর সুরক্ষা নিশ্চিত করণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বিরামহীনভাবে ছুটে বেড়াচ্ছেন প্রতিটি গ্রামে, গঞ্জে এই চেয়ারম্যান।

সরেজমিনে গিয়ে অনেকে জানান, সার্বক্ষণিক তিনি চলমান পরিস্থিতিতে সরকারের দেয়া সকল সচেতনতা বার্তা গ্রামের সাধারন মানুষকে সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে নিরাপদ দ্রুত বজায় রেখে উদ্বুদ্ধ করছে। বলা যেতে পারে তিনি নিজেকে জনগনের সেবায় বিলিয়ে দিচ্ছে। মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও সচেতনতায় আরেক নাম অাতিয়ার রহমান চেয়ারম্যান। বর্তমানে তিনি ছাড়া আমাদের গ্রামে এখন পর্যন্ত কেউ তারমত করে খোঁজখবর নেয়নি। সে গড্ডিমারী ইউনিয়নের একজন ইউপি চেয়ারম্যান হয়ে মানবতার সেবায় অন্যরকম দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে।

তিনি চেয়ারম্যান হওয়ার পর প্রতিশ্রুতি রাখতে ঘরে বসে না থেকে আপদে বিপদে সবার পাশে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। মনে হচ্ছে অাতিয়ার রহমানের পরিবার তাকে কোরবানি দিয়েছেন। মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও সচেতনতায় মানবতার সেবার জন্য।

এ বিষয় চেয়ারম্যান অাতিয়ার রহমান বলেন, জনগণের পাশে আমি আছি ও থাকবো সব সময়। কেউ যেন এই করোনাতে অকালে মৃত্যুবরণ না করে বা কারোর পরিবার যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে লক্ষ্যেই আমি কাজ করে যাচ্ছি। করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। এ ভাইরাস প্রতিরোধে হাত ধোয়াসহ প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থাগুলো সম্পর্কে জানাতে হবে এবং সকলকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। এ বিষয়ে আতঙ্কিত না হয়ে আমাদের সবার আরো সচেতন হওয়া উচিত। নিজেকে নিরাপদে রাখতে হবে। সকলকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং জনসমাগম থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করতে হবে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments