সোমবার, নভেম্বর ২৩

তিন কন্যা সন্তানের জননী সুমনা পেলেন আর্থিক সহায়তা

এ, জেড, এম উজ্জ্বল, স্টাফ রিপোর্টার


বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের ছোট গৌরীচন্না গ্রামের সোহেলের স্ত্রী, এক সঙ্গে তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়া সুমনাকে, সেমবার (৩১ আগষ্ট ২০২০ ইং) দুপুরে বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ নিজ হাতে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। সুমনা একসঙ্গে তিন কন্যা সন্তান জন্ম দিলেও জনপ্রতিনিধিদের ঘুষ দিতে না পারায় তার ভাগ্যে জোটেনি সরকারি মাতৃত্বকালীন ভাতা।

জানা গেছে গত ১১ মাস আগে সাবিহা, তোহা ও তুশা নামের তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়াকে ঘুষ দিতে না পারায় সুমনা মাতৃত্ব কালীন ভাতা পাননি। গত ২৪ আগষ্ট স্থানীয় এক সাংবাদিক বরগুনা জেলা প্রশাসককে এমন তথ্য জানান। সুমনার স্বামী সোহেল ঢাকায় সামান্য দিনমজুরের কাজ করতেন। করোনাভাইরাসের কারনে সেই কাজও এখন নেই। তিনটি শিশু সন্তান নিয়ে অতি কষ্টে আছেন সুমনা।

পরে জেলা প্রশাসক বিষয়টি আমলে নিয়ে সোমবার (৩১আগষ্ট ২০২০ইং) দুপুরে তিন কন্যা সন্তান সহ সুমনা ও তার স্বামী সোহেলকে তার কার্যালয়ে ডেকে পাঠান। এ সময় জেলা প্রশাসক সুমনাকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা, সন্তানদের জন্য পোশাক, সুমনাকে শাড়ি ও ৫০ কেজি চাল দেন। জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, আমি যা দিয়েছি তা প্রধানমন্ত্রীর উপহার। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন একজন মানুষও না খেয়ে থাকবেনা। আমি জেনেছি সুমনা তিনটি শিশু সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাকে আরও আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments